[X]
Home / স্বাস্থ্য সেবা / যে ৭টি খাবার শিশুর মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করে

যে ৭টি খাবার শিশুর মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করে

শিশুদের বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে তাদের খাবারে পরিবর্তন আনা প্রয়োজন পড়ে। বিভিন্ন সমীক্ষায় দেখা গেছে কিছু খাবার আছে, যা নিয়মিত গ্রহণের ফলে শিশুর মনযোগ, স্মরণশক্তি এমনকি মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। সাইকোলজিস্ট Drew Ramsey, MD, co-author of The Happiness Diet and Fifty Shades of Kale মনে করেন “ এই সময়টা বেশ কঠিন মস্তিষ্কের উন্নতির জন্য, এখন শিশুরা যা খাচ্ছে তার প্রভাব সরাসরি মস্তিষ্কের উপর পড়ছে”। এমন কিছু সুপার ফুড আছে যা শিশুর মস্তিষ্কের উন্নতি সাধন করে। আসুন তাহলে আজ নিই কিছু সুপার ফুডের নাম।

 

১। ডিম

Beth Saltz বলেন “ ডিমের প্রোটিন এবং পুষ্টি উপাদান শিশুর মনোযোগ বৃদ্ধিতে সাহায্য করে”। ডিমে রয়েছে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড, জিঙ্ক ইত্যাদি যা মস্তিষ্কে কোষ তৈরি করে। যত বেশি কোষ তৈরি হবে স্মৃতিশক্তি ততই বৃদ্ধি পায়।

 

২। দুধ

প্রোটিন, ভিটামিন ডি, ফসফরাস এবং ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার দুধ স্বাস্থ্যের জন্য উপকারি, এটি আমরা সবাই জানি। দুধের ক্যালসিয়াম শরীরে এ্যার্নাজি বৃদ্ধি করে এবং শরীরে প্রয়োজনীয় ইনসুলিন তৈরি করে।

 

৩। টকদই

টদকই প্রোটিন, ফ্যাট এবং ভিটামিন বি এর অন্যতম উৎস। টকদইয়ে থাকা ফ্যাট শিশুর মস্তিষ্কের জন্য খুব প্রয়োজন। মিষ্টি খাবার অথবা ফলের সাথে টকদই মিশিয়ে শিশুকে খাওয়াতে পারেন।

 

 

 

 

৪। মাছ

বাচ্চারা মাছ পছন্দ করে না। কিন্তু এই মাছকে সুপার ফুড বলা হয়। ওমেগা থ্রি এবং ভিটামিন ডি স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করে এবং মেমরি লস হওয়ার সম্ভাবনা হ্রাস করে। সামুদ্রিক মাছ যেমন স্যামন, টুনা, সার্ডেন ইত্যাদি মাছে প্রচুর পরিমাণ ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে। Bonnie Taub-Dix বলেন “যত বেশি ওমেগা থ্রি মস্তিষ্ক পাবে তত বেশি শিশুর মনযোগ বৃদ্ধি পাবে”।

 

৫। বাদাম

প্রোটিন, ফ্যাটি অ্যাসিড, ভিটামিন এবং মিনারেল সমৃদ্ধ বাদাম মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। সকালের নাস্তায় পিনাট বাটার রাখুন। অথবা প্রতিদিন এক মুঠো বাদাম খাওয়ানোর অভ্যাস করুন।

 

৬। আপেল এবং আলু বোখরা

অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ আপেল মস্তিষ্কের কোষ সচল রাখে। শিশুদের মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধিতে এই ফল দুটি বেশ কার্যকর। প্রতিদিনের খাদ্যতালিকা এই দুটি ফল রাখার চেষ্টা করুন।

 

 

 

 

৭। ব্রকলি

ব্রকলিতে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন কে রয়েছে যা ব্রেইনপাওয়ার উন্নত করে। কাঁচা সালাদ হিসেবে অথবা রান্না করে ব্রকলি শিশুকে খাওয়াতে পারেন। ব্রকলির মত আরেকটি সবজি হল ফুলকপি। ব্রকলির পরিবর্তে ফুলকপি খাওয়াতে পারেন।

 

এই খাবারগুলোর সাথে অব্যশই আরেকটি খাবার রাখবেন তা হল পানি। শিশুরা পানি পানে বেশ অনীহা থাকে। লক্ষ্য রাখেন আপনার শিশুটি যেন প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করে। পানি মস্তিষ্ক সচল রাখতে সাহায্য করে।

 

 

আরো পড়ুনঃ

 

Check Also

প্রেগনেন্সি পরবর্তী ১১ টি সত্য যা কেউ আপনাকে বলেনি!

প্রেগনেন্সি পরবর্তী ১১ টি সত্য যা কেউ আপনাকে বলেনি!   আপনার গর্ভজাত ছোট্ট শিশুটির জন্মের …

Loading...