Tuesday , November 22 2016
[X]
Home / ত্বকের যত্ন / জেনে নিন ব্রণ দুর করার সবচেয়ে ভালো প্রাকৃতিক উপায়!

জেনে নিন ব্রণ দুর করার সবচেয়ে ভালো প্রাকৃতিক উপায়!

যে কোন বয়সের মানুষেরই ব্রণের সমস্যা হতে পারে। তবে কিশোর বয়সীদের বেশি হতে দেখা যায়। কারণ এই সময়ে শরীরে হরমোনের লেভেল বৃদ্ধি পায়। এছাড়াও কম ঘুম হলে, অনেক বেশি স্ট্রেসে ভুগলে, খাদ্যের অ্যালার্জির কারণে, অস্বাস্থ্যকর খাবার খেলে এবং অস্থির জীবন যাপন করলে ব্রণ হয়। মুখে, বুকে, পিঠে ও মাথার তালুতে ব্রণ হতে পারে। সাধারণ ও ঘরোয়া উপায়েই ব্রণের প্রাদুর্ভাব কমানো ও প্রতিরোধ করা যায়।  ব্রণ দূর করার সবচেয়ে ভালো প্রাকৃতিক প্রতিকার সম্পর্কে জেনে নিই চলুন।

 

১। বেকিং সোডা

বেকিং সোডা বা সোডিয়াম বাই কার্বনেট ত্বকের জন্য এক্সফলিয়েটর হিসেবে কাজ করে। তাছাড়া ত্বকের ছিদ্রকে উন্মুক্ত করে এবং মরা চামড়া দূর করে। এটি যেকোন পুরনো দাগ বা ব্রণের দাগ দূর করতে সাহায্য করে। সামান্য কুসুম গরম পানির সাথে ১/২ চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। তারপর এটি মুখে লাগান এবং ১০-১৫ মিনিট রাখুন। প্রথমে এটাকে খুব শক্তিশালী মনে হবে। তাই অল্প সময় ব্যবহার করুন। আস্তে আস্তে সময় বাড়াতে পারেন। সপ্তাহে ১/২ দিন এটি ব্যবহার করুন। আপনি নিজেই পার্থক্য দেখতে পাবেন।

 

২। আপেল সাইডার ভিনেগার

ব্রণ দূর করার জন্য এই প্রাকৃতিক উপাদানটিও খুব শক্তিশালী। আপেল সাইডার ভিনেগারে ব্যাকটেরিয়া নাশক ও ছত্রাকনাশক উপাদান আছে। আধাকাপ পানিতে কয়েক চামচ আপেল সাইডার ভিনেগার মিশিয়ে নিয়ে মুখে লাগান।। তবে আপেল সাইডার ভিনেগার কাঁচা ও অপরিশোধিত হতে হবে।

 

৩। নারিকেল তেল

নারিকেল তেলে ব্যাকটেরিয়া নাশক ও ছত্রাকনাশক উপাদান আছে। তাছাড়া এটি একটি ভালো ময়েশ্চারাইজার। এটি ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে সাহায্য করে এবং লালভাব দূর করে। আপনার ত্বকে ভালো করে নারিকেল তেল লাগান এবং ম্যাসাজ করুন। দিনে কয়েকবার লাগাতে পারেন এটি। নারিকেল তেল দেয়ার পরে আর ময়েশ্চারাইজার লাগানোর প্রয়োজন নেই। এটি খুব ভালোভাবে কাজ করে এবং ত্বকের ছিদ্র বন্ধ করেনা। সম্ভাব্য উপকারিতা লাভের জন্য অর্গানিক নারিকেল তেল ব্যবহার করুন।

 

৪। লেবুর রস

লেবুতে অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল ও অ্যাস্ট্রিঞ্জেন্ট উপাদান আছে যা ত্বক পরিষ্কার করতে সাহায্য করে। লেবুর রস মুখে লাগিয়ে ১৫ বা তার বেশি সময় অপেক্ষা করুন। অথবা ১ টুকরো লেবু নিয়ে আক্রান্ত স্থানে আস্তে আস্তে ঘষুন। কিছুক্ষণ রেখে ধুয়ে ফেলুন। আপনার ত্বক যদি খুব বেশি শুষ্ক হয়ে যায় তাহলে প্রতিদিনের পরিবর্তে সপ্তাহে ২/৩ দিন ব্যবহার করুন।

 

এছাড়াও ব্রণ দূর করার জন্য টি ট্রি ওয়েল, ডিমের সাদা অংশ, দই, রসুন, কর্ণস্টার্চ, অ্যালোভেরা, বরফের টুকরা ও ওটমিল ব্যবহার করতে পারে। ব্রণ দূর করার জন্য বিভিন্ন ধরণের প্রাকৃতিক উপায় আছে। কিন্তু আপনি কোনটি ব্যবহারের করবেন? কোনটি আপনার জন্য ভালো হবে? প্রত্যেকের ত্বকের ধরণ আলাদা। তাই আপনার জন্য কোনটি ভালো হবে সেটা আপনাকেই নির্ধারণ করতে হবে।

Content Protection by DMCA.com

Check Also

Revitalize skin

ত্বককে পুনরুজ্জীবিত করুন সহজ ৫টি ফেসপ্যাকে

বয়স বাড়ার সাথে সাথে আমাদের ত্বক উজ্জ্বলতা হারিয়ে ফেলে। বয়সের ছাপ, বলিরেখা পড়া সহ নানা …

Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *