Home / পুরুষের স্বাস্থ্য / ধাতু দুর্বলতার কারণ , লক্ষণ এবং চিকিৎসা!

ধাতু দুর্বলতার কারণ , লক্ষণ এবং চিকিৎসা!

অনৈচ্ছিক বীর্যপাতের নামই হলো ধাতু দুর্বলতা । এ ধরনের সমস্যায় সপ্নদোশ বা কম উদ্দীপনা ছাড়াই বারবার বীর্যস্থলন হয় । সাধারণভাবে বলতে গেলে ইহা নিজে কোন রোগ নয় বরং অন্যান্য রোগের উপসর্গ । যৌবন কালে অস্বাভাবিক উপায়ে ধাতু ক্ষয় হলে এই সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে , অতিরিক্ত যৌন মিলন করা ইহার প্রধান কারণ । আবার অনেক সময় সিফিলিস , গনোরিয়া রোগের লক্ষণে এই সমস্যা দেখা দিতে পারে ।

 

*এর লক্ষণসমূহ :- স্পারম্যাটোরিয়ার লক্ষণযুক্ত রোগীর ধাতু অত্যন্ত তরল হয় । অনেক সময় পাতলা পানির মত । নির্গত ধাতু ঘনত্ব (viscosity) খুব কম । রোগী ধীরে ধীরে দুর্বল হয়ে পড়ে এবং দেহগত অপুষ্টির ভাব প্রকাশ পেয়ে থাকে । দেহের সৌন্দর্য নষ্ট হয় এবং জীর্ণ শীর্ণ হয়ে পড়ে , মুখ মলিন এবং চক্ষু কোঠরাগত হয়ে পরে । দেহে প্রয়োজনীয় প্রোটিন এবং ভিটামিনের প্রবল অভাব পরিলক্ষিত হয় । রোগীর জীবনীশক্তি দুর্বল হয়ে পড়ে এবং নানা প্রকার রোগে অতি সহজেই আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে ।

 

*দেহে যৌন হরমোন বা পিটুইটারি এড্রিনাল প্রভৃতি গ্রন্থির হরমোন কম নিঃসৃত হয় । ইহার ফলে দেহে যৌন ক্ষমতা কমে যায় এবং ধাতু ধীরে ধীরে পাতলা হতে থাকে । আবার এর ফলে গনোরিয়ার মত রোগের প্রকাশ লাভ করার সুযোগ হয় । ধাতু ক্ষয় বেশি হওয়ার দরুন দৈহিক এবং মানসিক দুর্বলতা বৃদ্ধি পায় । আক্রান্ত ব্যক্তি সর্বদাই অস্থির বোধ করে । বসা থেকে উঠলেই মাথা ঘোরে এবং চোখে অন্ধকার দেখে , ক্ষধাহীনতার ভাব দেখা দেয় । ইহাতে পেনিস বা জননেদ্রীয় দুর্বল হয়ে যায় , শুক্রের ধারণ শক্তি কমে যায় । রাত্রে স্বপ্ন দেখে ধাতু ক্ষয় হয় , দিনের বেলায় স্বপ্ন দেখে ধাতু ক্ষয় হয় ।

 

ধূমপান করেন? এই পানীয়টি পরিষ্কার করবে আপনার ফুসফুস!

 

উপরের আলোচিত লক্ষণগুলির সব কয়টি বা কোন কোনটি এই সমস্যায় আক্রান্ত রোগীর ক্ষেত্রে পরিলক্ষিত হয়ে থাকে । যেহেতু এই অবস্থায় আক্রান্ত ব্যক্তি মানসিক ভাবে অনেক দুর্বল থাকে তাই রাস্তা ঘাটের তথাকথিত হারবাল তাদের খুব সহজেই প্রতারিত করে থাকে । কিন্তু দেখা যায় তাদের চিকিত্সায় এই সমস্যাটি পুরুপুরি নির্মূল হয় না । আর তখন ঐসব চিকিত্সকরা আক্রান্ত ব্যক্তিকে নানা প্রকার উত্তেজক ঔষধ দিয়ে এইগুলি সব সময় খেয়ে যেতে বলে । আর সহজ সরল ব্যক্তিরা আসল সত্যটা না জানার কারণে তাদের দেয়া ক্ষতিকর উত্তেজক ঔষধগুলি দিনের পর দিন ব্যবহার করে করে সমস্যাটিকে আরো জটিল থেকে জটিলতর করে তুলে ।

 

জেনে নিন দাম্পত্য জীবনে সুখের জন্য মাসে কতবার মিলন করা উচিত!

 

যথাযথ চিকিৎসায় ধাতু দৌর্বল্য (Spermatorrhoea) স্পারম্যাটোরিয়ার সমস্যাটা একেবারে মূল থেকে নির্মূল হয়ে রোগী পুরুপুরি সুস্থ হয়ে উঠে । তার জন্য খুব বেশি দিন ধরে ঔষধও খাওয়া লাগে না । তাই এ ধরনের সমস্যায় কেউ আক্রান্ত হলে অযথা উত্তেজক এবং ক্ষতিকর ঐসব ঔষধ খেয়ে খেয়ে আপনার যৌন জীবন বিপর্যস্থ না করে যথাযথ চিকিত্সা নিন , এই সমস্যা থেকে বাঁচবেন এবং খুব দ্রুতই আরোগ্য লাভ করবেন ।  ইনশাল্লাহ । ধন্যবাদ ।

Check Also

ছেলেদের বীর্যপাত এর পর কি করতে হয়, যা ছেলেদের অবশ্যই জানা উচিৎ!

ছেলেদের বীর্যপাত এর পর কি করতে হয়, যা ছেলেদের অবশ্যই জানা উচিৎ!   অনেক পুরুষই …

9 comments

  1. চিকিত্সা কোথায় নেব ?

  2. মিজানুর

    কোন ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করবো বলবেন কি

  3. Spermatorrhoea r problem ki vabe solv kora jai

  4. কি করলে সমস্যা সমাধান হবে

  5. Ki Kore chikissa nib bolben

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *