[X]
Home / পুরুষের স্বাস্থ্য / ধাতু দুর্বলতার কারণ , লক্ষণ এবং চিকিৎসা!

ধাতু দুর্বলতার কারণ , লক্ষণ এবং চিকিৎসা!

অনৈচ্ছিক বীর্যপাতের নামই হলো ধাতু দুর্বলতা । এ ধরনের সমস্যায় সপ্নদোশ বা কম উদ্দীপনা ছাড়াই বারবার বীর্যস্থলন হয় । সাধারণভাবে বলতে গেলে ইহা নিজে কোন রোগ নয় বরং অন্যান্য রোগের উপসর্গ । যৌবন কালে অস্বাভাবিক উপায়ে ধাতু ক্ষয় হলে এই সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে , অতিরিক্ত যৌন মিলন করা ইহার প্রধান কারণ । আবার অনেক সময় সিফিলিস , গনোরিয়া রোগের লক্ষণে এই সমস্যা দেখা দিতে পারে ।

 

*এর লক্ষণসমূহ :- স্পারম্যাটোরিয়ার লক্ষণযুক্ত রোগীর ধাতু অত্যন্ত তরল হয় । অনেক সময় পাতলা পানির মত । নির্গত ধাতু ঘনত্ব (viscosity) খুব কম । রোগী ধীরে ধীরে দুর্বল হয়ে পড়ে এবং দেহগত অপুষ্টির ভাব প্রকাশ পেয়ে থাকে । দেহের সৌন্দর্য নষ্ট হয় এবং জীর্ণ শীর্ণ হয়ে পড়ে , মুখ মলিন এবং চক্ষু কোঠরাগত হয়ে পরে । দেহে প্রয়োজনীয় প্রোটিন এবং ভিটামিনের প্রবল অভাব পরিলক্ষিত হয় । রোগীর জীবনীশক্তি দুর্বল হয়ে পড়ে এবং নানা প্রকার রোগে অতি সহজেই আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে ।

 

*দেহে যৌন হরমোন বা পিটুইটারি এড্রিনাল প্রভৃতি গ্রন্থির হরমোন কম নিঃসৃত হয় । ইহার ফলে দেহে যৌন ক্ষমতা কমে যায় এবং ধাতু ধীরে ধীরে পাতলা হতে থাকে । আবার এর ফলে গনোরিয়ার মত রোগের প্রকাশ লাভ করার সুযোগ হয় । ধাতু ক্ষয় বেশি হওয়ার দরুন দৈহিক এবং মানসিক দুর্বলতা বৃদ্ধি পায় । আক্রান্ত ব্যক্তি সর্বদাই অস্থির বোধ করে । বসা থেকে উঠলেই মাথা ঘোরে এবং চোখে অন্ধকার দেখে , ক্ষধাহীনতার ভাব দেখা দেয় । ইহাতে পেনিস বা জননেদ্রীয় দুর্বল হয়ে যায় , শুক্রের ধারণ শক্তি কমে যায় । রাত্রে স্বপ্ন দেখে ধাতু ক্ষয় হয় , দিনের বেলায় স্বপ্ন দেখে ধাতু ক্ষয় হয় ।

 

ধূমপান করেন? এই পানীয়টি পরিষ্কার করবে আপনার ফুসফুস!

 

উপরের আলোচিত লক্ষণগুলির সব কয়টি বা কোন কোনটি এই সমস্যায় আক্রান্ত রোগীর ক্ষেত্রে পরিলক্ষিত হয়ে থাকে । যেহেতু এই অবস্থায় আক্রান্ত ব্যক্তি মানসিক ভাবে অনেক দুর্বল থাকে তাই রাস্তা ঘাটের তথাকথিত হারবাল তাদের খুব সহজেই প্রতারিত করে থাকে । কিন্তু দেখা যায় তাদের চিকিত্সায় এই সমস্যাটি পুরুপুরি নির্মূল হয় না । আর তখন ঐসব চিকিত্সকরা আক্রান্ত ব্যক্তিকে নানা প্রকার উত্তেজক ঔষধ দিয়ে এইগুলি সব সময় খেয়ে যেতে বলে । আর সহজ সরল ব্যক্তিরা আসল সত্যটা না জানার কারণে তাদের দেয়া ক্ষতিকর উত্তেজক ঔষধগুলি দিনের পর দিন ব্যবহার করে করে সমস্যাটিকে আরো জটিল থেকে জটিলতর করে তুলে ।

 

জেনে নিন দাম্পত্য জীবনে সুখের জন্য মাসে কতবার মিলন করা উচিত!

 

যথাযথ চিকিৎসায় ধাতু দৌর্বল্য (Spermatorrhoea) স্পারম্যাটোরিয়ার সমস্যাটা একেবারে মূল থেকে নির্মূল হয়ে রোগী পুরুপুরি সুস্থ হয়ে উঠে । তার জন্য খুব বেশি দিন ধরে ঔষধও খাওয়া লাগে না । তাই এ ধরনের সমস্যায় কেউ আক্রান্ত হলে অযথা উত্তেজক এবং ক্ষতিকর ঐসব ঔষধ খেয়ে খেয়ে আপনার যৌন জীবন বিপর্যস্থ না করে যথাযথ চিকিত্সা নিন , এই সমস্যা থেকে বাঁচবেন এবং খুব দ্রুতই আরোগ্য লাভ করবেন ।  ইনশাল্লাহ । ধন্যবাদ ।

Check Also

কোন জিনিসটি সপ্তাহে ১বার ব্যবহার করলে যৌবন থাকবে আজীবন দেখুন ভিডিওতে…

কোন জিনিসটি সপ্তাহে ১বার ব্যবহার করলে যৌবন থাকবে আজীবন দেখুন ভিডিওতে…   সৌন্দর্যের দিক থেকে …

Loading...

13 comments

  1. চিকিত্সা কোথায় নেব ?

  2. মিজানুর

    কোন ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করবো বলবেন কি

  3. Spermatorrhoea r problem ki vabe solv kora jai

  4. কি করলে সমস্যা সমাধান হবে

  5. Ki Kore chikissa nib bolben

  6. Koun sa doctor ke pass jaow

  7. আচ্ছালামু আলাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহ
    আমি আমার একটা শারিরিক সমস্যার কারনে আপনাদের স্বরণাপন্য হয়েছি সমস্যা টি হলো এই আমি যখন রাত্রে ঘুমায় ঘুমের ঘরে স্বপ্নে আজে বাজে কিছু দেখি না কিন্তু ঘুম থেকে উঠে দেখি বীর্য বের হয়ে কাপড় বিজে রয়েছে এবং বীর্য বাহির হয় কখন তা আমার জানার বাহিরে এই সমস্যার কারনে আমার মুখ ভ্যাঁঙ্গে যাচ্ছে শরির টা দিন দিন হালকা পাতলা হয়ে যাচ্ছে আমি ভাবতে পারছিনা কি করবো তাই আপনাদের সমীপে আমার আকূল আবেদন আমাকে এই রোগ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য যা করণীয় তা জানিয়ে দিলে আমি খুব উপকৃত হবো

  8. আমি আমার একটা শারিরিক সমস্যার কারনে আপনাদের স্বরণাপন্য হয়েছি সমস্যা টি হলো এই আমি যখন রাত্রে ঘুমায় ঘুমের ঘরে স্বপ্নে আজে বাজে কিছু দেখি না কিন্তু ঘুম থেকে উঠে দেখি বীর্য বের হয়ে কাপড় বিজে রয়েছে এবং বীর্য বাহির হয় কখন তা আমার জানার বাহিরে এই সমস্যার কারনে আমার মুখ ভ্যাঁঙ্গে যাচ্ছে শরির টা দিন দিন হালকা পাতলা হয়ে যাচ্ছে আমি ভাবতে পারছিনা কি করবো তাই আপনাদের সমীপে আমার আকূল আবেদন আমাকে এই রোগ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য যা করণীয় তা জানিয়ে দিলে আমি খুব উপকৃত হবো

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *