[X]
Home / অন্যান্য / সুখে থাকার জন্য বিয়ে? ভেবে দেখুন এই বিষয়গুলো!

সুখে থাকার জন্য বিয়ে? ভেবে দেখুন এই বিষয়গুলো!

 
আপনার দায়িত্বশীলতা
আপনি কি বিয়ের মত দায়িত্বশীল সম্পর্কে যেতে প্রস্তুত? আমাদের দেশে একটি প্রচলিত কথা আছে। এখানে বিয়ে শুধু ছেলে এবং মেয়েটির মধ্যে হয় না। বিয়ে হয় দুই পরিবারের মধ্যে। দুই পরিবার মানে অনেকগুলো সম্পর্ক। তারপর আবার নিজেদেরও বোঝাপড়া, সাংসারিক দায়িত্ব নেওয়া এসব বিষয় রয়েছে। আগে ভাবুন, আপনি এই দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত কিনা।
আর্থিক অবস্থা
আজকের যুগে ছেলে বা মেয়ে উভয়েরই আর্থিক অবস্থা ভাল হওয়া জরুরি। শিক্ষিত মানুষ মাত্রই নিজের পায়ে দাঁড়াবে। নাহলে আত্মমর্যাদার সংকট দেখা দেবেই। অর্থ নির্ধারন করে সম্মান, মর্যাদাপূর্ণ অবস্থান। তাই নিজের আর্থিক অবস্থার কথা ভাবুন। আগে জীবনে স্থিতি নিয়ে আসুন।
স্বাধীনতা
জীবনে স্বাধীনতার মূল্য অনেক। আজকে আপনি হয়ত অনেক যোগ-বিয়োগ করে বিয়ে করার মাঝেই যাবতীয় সুখের খোঁজ পাচ্ছেন। কিন্তু মানুষটি যদি সঠিক না হয়, তাহলে বিয়ে আপনার জন্য হতে পারে শেকল।
স্বপ্ন
নিজেকে প্রশ্ন করুন, আপনার স্বপ্ন কি? আপনি নিজেকে কোথায় দেখতে চান আর তার সাথে বিয়ের সম্পর্ক আছে কি না! অথবা বিয়ে আপনার স্বপ্ন পূরণে কোন বাঁধা কি না! একজন মানুষ মূলত বেঁচে থাকে নিজেকে নিয়ে। প্রতিটা সম্পর্ক অনেক মূল্যবাণ আর বিয়ের মত সম্পর্ক দিয়ে পাওয়া মানুষটা আরও বিশেষ। কিন্তু বেলাশেষে আপনার সাথে থাকবে আপনার স্বপ্নরা। আপনার সাফল্যই আপনার মনকে শান্তি দেবে। আপনি যদি জীবনে ব্যার্থ হন, হতাশা ঘিরে ধরবে আপনাকে।
সমস্যার শেষ নাকি শুরু?
বিয়ে দিয়ে কি আসলে সমস্যার শেষ নাকি শুরু? আরেকটু ভাল করে ভেবে দেখুন। মানসিক ভাবে আপনি যদি সম্পূর্ণ রূপে প্রস্তুত না থাকেন এবং সম্পর্কটি যদি হয় ভুল মানুষের সাথে তাহলে এই সম্পর্ক আপনাকে মানসিক ভোগান্তিতে ফেলবে। সমস্যাগুলো যাই হোক, তার সমাধান কখনোই বিয়ে নয়। একটি নতুন সম্পর্ক শুধু সম্পর্কের চাহিদা থেকেই হতে পারে।

একা থাকার সুবিধা
সমাজ আপনাকে দেখিয়ে দিচ্ছে, একা থাকার বিভিন্ন সমস্যা। কিন্তু আপনি নিজে ভেবে দেখুন, এই যে স্বাধীন জীবন আপনি যাপন করে চলেছেন, যেখানে আপনার ইচ্ছা-অনিচ্ছা একান্তই আপনার, যেখানে আপনাকে চিন্তা করতে হচ্ছে না আর কারও কথা সেখানে বিয়ে মানে একটি আটপোড়ে সংসারে নিজেকে ঢুকিয়ে ফেলা নয় তো? ভাল ভাবে জেনে নিন, আপনার কি চাই! আপনার চাওয়া অনুযায়ী বিয়ে স্বর্গের আরেক নামও হতে পারে।
গবেষণার ফল
বিশ্ব জুড়ে বিভিন্ন গবেষণা কিন্তু বলে ভিন্ন কথা। সমাজের গুরুজনদের সাথে একদম মেলে না তাদের স্টাডি। গবেষকরা দেখেছেন, বিবাহিত মানুষেরা অবিবাহিত মানুষের তুলনায় কম সুখী। আর্থ-সামাজিক পাইপার্শ্বিকতা তাদের স্ট্রেস বাড়ায়, দুশ্চিন্তা, হাতাশা বাড়ায়। অবিবাহিতরা সেই তুলনায় থাকেন ফুরফুরে। তাদের জীবনে স্ট্রেসও কম থাকে।

আরো পড়ুনঃ

 

Check Also

জেনে নিন বিরক্তিকর গলা ব্যথার ঘরোয়া প্রতিকার!

জেনে নিন বিরক্তিকর গলা ব্যথার ঘরোয়া প্রতিকার!   সাধারণত গলা ব্যথা হচ্ছে ঠান্ডার একটি প্রাথমিক …

Loading...